সহকারী শিক্ষকদের বেতনের গ্রেড ১১

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের বেতনের গ্রেড বাড়ানো হচ্ছে। তাদেরকে সরকারী বেতন কাঠামোর ১১ তম গ্রেডে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। প্রাথমিক গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, বেতন বৈষম্য দূর করতেই সিদ্ধান্ত। শিগগিরই এটি বাস্তবায়ন করা হবে।

তেজগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আলমগীর হোসেন। ৩২ বছর চাকরি শেষে ২০ হাজার ৪২০ টাকা স্কেলে বেতন নিয়ে কিছুদিনের মধ্যেই অবসরে যাচ্ছেন। অল্প বেতনে সারাজীবন তাকে পার করতে হয়েছে টানাপড়েনের মধ্যে।

একজন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষককে দিনে গড়ে ৬টি করে ক্লাস নিতে হয়। ক্লাসের বাইরেও প্রায়ই বিভিন্ন সরকারি জরিপের কাজ, নির্বাচনি দায়িত্ব পালন করতে হয়। অথচ বর্তমান বেতন স্কেলে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকরা ১৩ তম গ্রেডে হাজার ৭শ টাকা স্কেলে বেতন পান।

শিক্ষকরা বলছেন, এই সময়ে এত অল্প বেতনে জীবন ধারণ কষ্টকর। তাই সহকারী শিক্ষকদের বেতন ১১ তম স্কেলে এবং প্রধান শিক্ষকদের বেতন ১০ম স্কেলে দেয়ার দাবি তাদের।
অবস্থায় প্রাথমিক গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আশ্বাস, শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য দূর করার কাজ চলছে

 
আজ ২৬,০৬,১৯।ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের রিপোর্ট এবং মন্ত্রী মহোদয়ের স্বাক্ষাতকার অনুযায়ী ,শি দের ১১ গ্রেড সুনিশ্চিত।যার ৮০ ভাগ কাজ সমাপ্ত হয়েছে,খুব শীঘ্রই ঘোশণা আসবে।সেই সাথে ধন্যবাদ জানাই ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন কে শিক্ষকদের সরজমিন স্বাক্ষাতকার সহ পজেটিভ একটি রিপোর্ট প্রকাশের জন্য।

রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের বেতনের গ্রেড বাড়ানো হচ্ছে। তাদেরকে সরকারী বেতন কাঠামোর ১১ তম গ্রেডে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। প্রাথমিক গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, বেতন বৈষম্য দূর করতেই সিদ্ধান্ত। শিগগিরই এটি বাস্তবায়ন করা হবে।

তেজগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আলমগীর হোসেন। ৩২ বছর চাকরি শেষে ২০ হাজার ৪২০ টাকা স্কেলে বেতন নিয়ে কিছুদিনের মধ্যেই অবসরে যাচ্ছেন। অল্প বেতনে সারাজীবন তাকে পার করতে হয়েছে টানাপড়েনের মধ্যে।

একজন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষককে দিনে গড়ে ৬টি করে ক্লাস নিতে হয়। ক্লাসের বাইরেও প্রায়ই বিভিন্ন সরকারি জরিপের কাজ, নির্বাচনি দায়িত্ব পালন করতে হয়। অথচ বর্তমান বেতন স্কেলে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকরা ১৩ তম গ্রেডে হাজার ৭শ টাকা স্কেলে বেতন পান।

শিক্ষকরা বলছেন, এই সময়ে এত অল্প বেতনে জীবন ধারণ কষ্টকর। তাই সহকারী শিক্ষকদের বেতন ১১ তম স্কেলে এবং প্রধান শিক্ষকদের বেতন ১০ম স্কেলে দেয়ার দাবি তাদের।
অবস্থায় প্রাথমিক গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আশ্বাস, শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য দূর করার কাজ চলছে।

 

আজ ২৬,০৬,১৯।ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের রিপোর্ট এবং মন্ত্রী মহোদয়ের স্বাক্ষাতকার অনুযায়ী ,শি দের ১১ গ্রেড সুনিশ্চিত।যার ৮০ ভাগ কাজ সমাপ্ত হয়েছে,খুব শীঘ্রই ঘোশণা আসবে।সেই সাথে ধন্যবাদ জানাই ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন কে শিক্ষকদের সরজমিন স্বাক্ষাতকার সহ পজেটিভ একটি রিপোর্ট প্রকাশের জন্য।