প্রাথমিকের প্রধান ও সহকারী শিক্ষকরা ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনে নামছেন

প্রধান শিক্ষকদের ১০ গ্রেড ও সহকারী শিক্ষকদের বেতন ১২ গ্রেড প্রদানের দাবি অর্থ মন্ত্রণালয় নাকচের প্রতিবাদে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনে নামছেন প্রাথমিকের প্রধান ও সহকারী শিক্ষকদের সংগঠন বাংলাদেশ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতি (বাসপ্রবিপ্রশিস)। বিষয়টি নিয়ে সংগঠনটির সভাপতি মো. বদরুল আলম (মুকুল) এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে অন্যান্য শিক্ষকদের নিকট পরামর্শ ও প্রস্তাবনা চেয়েছেন।

তিনি তারা ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘প্রিয় শিক্ষক ভাই ও বোনেরা আপনারা সবাই অর্থ মন্ত্রনালয়ের উপসচিব জনাব সাদিয়া শারমিন মহোদয়ের স্বাক্ষরিত ০৮/০৯/২০১৯ ইং তারিখের চিঠিটি পড়েছেন। আমাদের মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রস্তাবিত প্রধান শিক্ষকদের ১০ গ্রেড ও সহকারী শিক্ষকদের বেতন ১২ গ্রেড প্রদানের প্রস্তাব অর্থ মন্ত্রনালয় কর্তৃক নাকচ করে দিয়েছেন। যেটা সত্যিই দুঃখজনক। তবে হাল ছেড়ে দিলে চলবেনা। এর বিরুদ্ধে আমাদের ঐক্যবদ্ধ দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। দাবি আদায়ে আন্দোলনের কোন বিকল্প নেই।

এ পর্যন্ত যা কিছু অর্জিত হয়েছে তার সব টুকুই আন্দোলনের ফসল। তাই শিক্ষকদের বৃহত্তর স্বার্থের কথা বিবেচনা করে অতীত সব কিছু ভুলে প্রধান শিক্ষকসহ সকল সংগঠন সমূহকে এক অভিন্ন আন্দোলনের কর্মসূচী প্রদানের উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছি।

এখানে একদফা দাবি প্রধান শিক্ষকদের ১০ গ্রেড সহকারী শিক্ষকদের ১১গ্রেড চাই। তাই অচিরেই ঢাকাতে সুবিধা জনক স্থানে সকল সংগঠনের নেতৃবৃন্দের বসার জন্য অনুরোধ করছি। এ বিষয়ে আপনাদের মতামত, পরামর্শ ও প্রস্তাবনা লিখে জানাবেন’।