পরিকল্পনামন্ত্রী নতুন শিক্ষাব্যবস্থার কথা জানালেন

পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান বলেছেন, আমরা সমন্বিত শিক্ষাব্যবস্থা চালু করে ব্রিটিশদের তৈরি ক্যারানিগিরির শিক্ষাব্যবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে চাই। আমরা চাই শিক্ষায় বৈষম্য কমাতে। তবে সমন্বিত শিক্ষাব্যবস্থার জন্য আমরা মিলিটারি হুকুম বা শক্তি দেখাবো না। শিক্ষার্থী ও জনতার সমর্থনে শিক্ষায় সমন্বিতব্যবস্থা ও সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা চালু করবো। এই লক্ষ্যে সরকার গভীর চিন্তা-ভাবনা করে কাজ করছে। সারাদেশে শিক্ষা বিস্তারে বিস্ফোরণ ঘটেছে বলে মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

শুক্রবার সকালে সুনামগঞ্জ জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রিড়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশের অনেক সরকারি চাকরিজীবী আছেন যারা দায়িত্ব পালন করতে চান না। পোস্টিং একটু দূরে হলেই যেতে চান না। এসব কাজ নিন্দনীয়।

মন্ত্রী আরও বলেন, আমাদের দেশের মানুষ স্বাধীন। আমাদের আয় বাড়ছে। আমরা সমুদ্রে ট্যানেল বানাচ্ছি। আকাশে উপগ্রহ পাঠিয়েছি। পায়রা সমুদ্র বন্দর ও রূপপুরে পারমানবিক বিদ্যুকেন্দ্র করছি। এই বিদ্যুৎ আমাদের হাওরে, পাহাড়ে, উপকূলে সর্বত্র পৌঁছে যাবে। কোনো ব্রিটিশ, পাঞ্জাবী, মোগল, সেন, পাঠান আর নেই। আমাদের শাসক আমরাই। তাই আমাদের উন্নয়নে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

এই স্কুল থেকে পরে মন্ত্রী জেলা শহরের সরকারি এসসি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়েও বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন।

সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ অ্যাডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ, সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট শামীমা শাহরিয়ার, জেলা পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম।