প্রাথমিকে কাবস্কাউট প্রসঙ্গে

কাবস্কাউট সম্পর্কে A টু Z. ।

প্রিয় পাঠক, এই পোষ্টটি কাব-স্কাউট জগতে যাঁরা নতুন, কাব-স্কাউট সম্পর্কে যাঁরা জানতে আগ্রহী এবং আমার কচি-কাঁচা কাব সোনামণি- যারা কাব প্রশিক্ষণ নিতে যাচ্ছে, তাদের জন্য। কাব-স্কাউট আন্দোলনে যে সমস্ত স্যার/ম্যাডাম এ্যাডভান্সড, তাঁদের প্রতি যথাযথ সম্মান জানিয়ে আপনাদেরই একজন সহযাত্রি হিসেবে আমি আবু বকর সিদ্দিক আজকের পোস্টের মূল বিষয় শুরু করছি।

কাব (Cub): যে সকল শিশুর স্কাউট হবার মত যথেষ্ট বয়স হয়নি, স্কাউট আন্দোলনে তাদের কাব-স্কাউট বলা হয়।

‘কাব(Cub)’ অর্থ শাবক বা বাচ্চা। স্কাউটিং-এ ‘কাব’ অর্থে নেকড়ে বাঘের বাচ্চাদের কথা বোঝানো হয়েছে। অর্থাৎ কাবেরা হলো শিশু নেকড়ে। মোটকথা, কাবও একজর স্কাউট। তবে পুরোপুরি স্কাউট হবার বয়স না হওয়ায় তারা হলো শিশু স্কাউট অর্থাৎ কাব-স্কাউট।

স্কাউট আন্দোলন মূলত তিনটি স্তরে রয়েছে-

১. কাব: প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদেরকে (৬+ থেকে ১০+ বছর বয়সী) ‘কাব’,

২. স্কাউট: মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের তরুণ-তরুণীদেরকে (১১+ থেকে ১৭ বছর বয়সী) ‘স্কাউট’,

৩. রোভার-স্কাউট: কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের যুবক-যুবতীদেরকে (১৮+ থেকে ২৫ বছর বয়সী) ‘রোভার-স্কাউট’ বলে।

কাব-স্কাউটের জনক ব্যাডেন পাওয়েল (বি.পি): আমাদের অনেকেরই জানা আছে লন্ডনের অধিবাসি “ রবার্ট স্টিফেনসন স্মীথ লর্ড ব্যাডেন পাওয়েল অব গিলওয়েল” সংক্ষেপে ব্যাডেন পাওয়েল বা বি.পি সাহেবের কথা। তিনি ১৯০৭ সালে বিশ্বে প্রথম ‘স্কাউট’ প্রোগ্রাম চালু করেন। পরে তাঁর সহধর্মিনী লেডি ব্যাডেন পাওয়েল ১৯০৯ সালে কিশোরী ও তরুণীদের উদ্দেশ্যে প্রবর্তন করেন “গার্লস গাইড”। কিশোর ও যুবকদের উদ্দেশ্যে স্কাউট প্রোগ্রাম চালু করার পর ব্যাডেন পাওয়েল বিশ্বের লক্ষ কোটি শিশুদের কথা ভাবলেন। ভাবনার এক পর্যায়ে ‘রূড ইয়ার্ড কিপলিং’ এর লেখা ‘জাংগল বুক’ নামক একটি বইয়ের গল্পের কথা তাঁর মনে পড়ল; যে বইয়ে নেকড়ে বাঘের দলের নিয়ম-শৃংঙ্খলা ও জংগলের অন্যান্য প্রাণির গল্প লেখা আছে। অবশেষে, তিনি ১৯১৬ সালে কাব-স্কাউট আন্দোলন শুরু করেন।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত এ দেশের ৬+ – ১০+ বছর বয়সী শিশুদেরকে “কাব” হিসেবে গণ্য করা হয়। কাব-স্কাউট একটি অরাজনৈতিক ও অসাম্প্রদায়িক সংগঠন।

কাব-প্রতিজ্ঞা: কাবের প্রতিজ্ঞা নিচে উল্লেখ করা হলো-

আমি প্রতিজ্ঞা করছি যে,

১. আল্লাহ/সৃষ্টিকর্তা ও আমার দেশের প্রতি কর্তব্য পালন করতে,

২. প্রতিদিন কারো না কারো উপকার করতে,

৩. কাব-আইন মেনে চলতে “আমি আমার যথাসাধ্য চেষ্টা করবো”।

কাব-আইন:

১. বড়দের কথা মেনে চলা,

২. নিজেদের খেয়ালে কিছু না করা।

কাব-মটো: “যথাসাধ্য চেষ্টা করা”

কাব-স্কাউটদের বৈশিষ্ট্য:

১. কাব-স্কাউটরা কাব প্রতিজ্ঞা নিয়ে আন্দোলনে যোগ দেয় এবং তার জীবনে প্রতিজ্ঞা মেনে চলার চেষ্টা করে।

২. কাব-স্কাউটরা বিফলতার কথা চিন্তা না করে যথা সাধ্য চেষ্টা করে।

৩. কাব-স্কাউটরা সকল কাজ হাতে কলমে করার মাধ্যমে শিখে।

৪. কাব-স্কাউটরা ছোট ছোট দলে (ছক্কায়) ভাগ হয়ে কাজ করে।

৫. কাব-স্কাউটদেরকে তাদের কাজের স্বীকৃতি ব্যাজের মাধ্যমে দেওয়া হয়।

৬. কাব-স্কাউটরা তাদের পোশাক, ব্যাজ ও স্কার্ফ পরিধান করে।

৭. কাব-স্কাউটরা তাদের আঙ্গুলের বিশেষ কায়দায় সালাম দেয় ও গ্রহন করে।

৮. কাব-স্কাউটরা ডান হাতে করমর্দন করে।

কাব-স্কাউটদের পোশাক (বালক):

১. টুপি: নীল রঙের পিক যুক্ত টুপি।

২. স্কার্ফ: উপজেলা স্কাউটস কর্তৃক গ্রুপের জন্য অনুমোদিত/লাল।

৩. শার্ট: ছাই (এ্যাশ) রঙের ঢাকনাযুক্ত(মাঝ খানে প্লেট দেওয়া) দুই পকেটওয়ালা হাফ শার্ট।

৪. প্যান্ট: গাঢ় নেভি ব্লু রঙের কাপড়ের হাফ প্যান্ট।

৫. বেল্ট: কালো রঙের বেল্ট।

৬. মোজা: সাদা রঙের ফুল মোজা। হাঁটুর নিচে একভাঁজ করে পরতে হবে।

৭. জুতা: কালো রঙের জুতা।

৮. ষষ্ঠক পরিচয়: ষষ্ঠকের রং-এর ৩.৮১ সে.মি. (১.৫ ইঞ্চি) সমবাহু বিশিষ্ট ত্রিকোণাকৃতি কাপড়ের তালি। বাম কাঁধের নিচে হাতার উপরের অংশে শীর্ষ কোণ উপরের দিকে রেখে পরতে হবে।

৯. কাঁধের ব্যাজ: ৫.০৮ সে.মি X১.২৭ সে.মি. (২ ইঞ্চি X ০.৫ ইঞ্চি) মাপের সবুজ পটভূমিতে লাল রঙের লেখা গ্রুপ নম্বরসহ কাঁধের ব্যাজ শার্টের উভয় হাতার উপরের অংশে সেলাই করে পরতে হবে।

১০. যে কোন রঙের উগল।

কাব-স্কাউটদের পোশাক (বালিকা):

১. টুপি: নীল রঙের পিক যুক্ত টুপি।

২. স্কার্ফ: উপজেলা স্কাউটস কর্তৃক গ্রুপের জন্য অনুমোদিত/লাল।

৩. শার্ট: ছাই (এ্যাশ) রঙের ঢাকনাযুক্ত(মাঝ খানে প্লেট দেওয়া) দুই পকেটওয়ালা হাফ/ফুল শার্ট।

৪. স্কার্ট: গাঢ় নেভি ব্লু রঙের স্কার্ট।

৫. বেল্ট: কালো রঙের বেল্ট।

৬. মোজা: সাদা রঙের ফুল মোজা। হাঁটুর নিচে একভাঁজ করে পরতে হবে।

৭. জুতা: কালো রঙের জুতা।

৮. ষষ্ঠক পরিচয়: ষষ্ঠকের রং-এর ৩.৮১ সে.মি. (১.৫ ইঞ্চি) সমবাহু বিশিষ্ট ত্রিকোণাকৃতি কাপড়ের তালি। বাম কাঁধের নিচে হাতার উপরের অংশে শীর্ষ কোণ উপরের দিকে রেখে পরতে হবে।

৯. কাঁধের ব্যাজ: ৫.০৮ সে.মি X১.২৭ সে.মি. (২ ইঞ্চি X ০.৫ ইঞ্চি) মাপের সবুজ পটভূমিতে লাল রঙের লেখা গ্রুপ নম্বরসহ কাঁধের ব্যাজ শার্টের উভয় হাতার উপরের অংশে সেলাই করে পরতে হবে।

১০. যে কোন রঙের উগল।

কাব-স্কাউটদের পোশাক (বালিকা):

১. টুপি: নীল রঙের পিক যুক্ত টুপি।

২. স্কার্ফ: উপজেলা স্কাউটস কর্তৃক গ্রুপের জন্য অনুমোদিত/লাল।

৩. শার্ট: ছাই (এ্যাশ) রঙের ঢাকনাযুক্ত(মাঝ খানে প্লেট দেওয়া) দুই পকেটওয়ালা হাফ/ফুল শার্ট।

৪. স্কার্ট: গাঢ় নেভি ব্লু রঙের স্কার্ট।

৫. বেল্ট: কালো রঙের বেল্ট।

৬. মোজা: সাদা রঙের ফুল মোজা। হাঁটুর নিচে একভাঁজ করে পরতে হবে।

৭. জুতা: কালো রঙের জুতা।

৮. ষষ্ঠক পরিচয়: ষষ্ঠকের রং-এর ৩.৮১ সে.মি. (১.৫ ইঞ্চি) সমবাহু বিশিষ্ট ত্রিকোণাকৃতি কাপড়ের তালি। বাম কাঁধের নিচে হাতার উপরের অংশে শীর্ষ কোণ উপরের দিকে রেখে পরতে হবে।

৯. কাঁধের ব্যাজ: ৫.০৮ সে.মি X১.২৭ সে.মি. (২ ইঞ্চি X ০.৫ ইঞ্চি) মাপের সবুজ পটভূমিতে লাল রঙের লেখা গ্রুপ নম্বরসহ কাঁধের ব্যাজ শার্টের উভয় হাতার উপরের অংশে সেলাই করে পরতে হবে।

১০. যে কোন রঙের উগল।

কাব-লিডারের পোশাক (পুরুষ):

১. টুপি: মানানসই টুপি।

২. স্কার্ফ: দলীয়।

৩. শার্ট: ছাই (এ্যাশ) রঙের ঢাকনাযুক্ত(মাঝ খানে প্লেট দেওয়া) দুই পকেটওয়ালা হাফ/ফুল শার্ট।

৪. প্যান্ট: গাঢ় নেভি ব্লু রঙের ফুল প্যান্ট।

৫. বেল্ট: মানানসই।

৬. মোজা: সাদা রঙের ফুল মোজা। প্যান্টের সঙ্গে মানানসই।

৭. জুতা: কালো রঙের জুতা।

কাব-লিডারের পোশাক (মহিলা):

১. টুপি: মানানসই টুপি।

২. স্কার্ফ: দলীয়।

৩. ব্লাউজ: গাঢ় নেভি ব্লু রঙের ফুল হাতা পাঞ্জাবি কলারের ব্লাউজ।

৪. শাঁড়ি: ছাই (এ্যাশ) রঙের।

৫. মোজা: শাঁড়ির সঙ্গে মানানসই।

৬. জুতা: কালো রঙের জুতা।

একজন কাব-লিডারের গুণাবলি:

১. কাব নিরাপত্তা,২. কাবদের মঙ্গলাকাঙ্খা,৩. সতর্কতা,৪. ঐকান্তিকতা,৫. কুসংস্কারমুক্ত,৬.দুঃসাধ্য সম্পাদনে সাহস,৭.উৎসাহ ও রহস্যপ্রিয়তা, ৮. কাব-স্কাউটদের উপর আস্থা,৯. সৌজন্যবোধ, ১০. সদিচ্ছা,১১. কর্মতৎপর,১২. সম্পর্কোন্নয়ন,১৩. কাব-স্কাউট প্রশিক্ষণ গ্রহন,১৪. কঠিন কাজ করার সাহস।

কাব-স্কাউটদের পদমর্যাদা ব্যাজ:

১. সহকারি ষষ্ঠক নেতা ব্যাজ: সহকারি ষষ্ঠক নেতা জামার বাম হাতার কনুই-এর ৩.৮১ সে.মি উপরে ১.২৭ সে.মি. চওড়া হলুদ রঙের একটি ফিতা সেলাই করে পরবে।

২. ষষ্ঠক নেতা ব্যাজ: ষষ্ঠক নেতা জামার বাম হাতার কনুই-এর ৩.৮১ সে.মি উপরে ১.২৭ সে.মি. চওড়া দুটি হলুদ রঙের ফিতা পরবে।ফিতা দুটি একটির নিচে আর একটি সমান্তরালভাবে সেলাই করে পরবে।

৩. সিনিয়র ষষ্ঠক নেতা ব্যাজ: সিনিয়র ষষ্ঠক নেতা জামার বাম হাতার কনুই-এর ৩.৮১ সে.মি উপরে ১.২৭ সে.মি. চওড়া তিনটি হলুদ রঙের ফিতা সেলাই করে পরবে।

ষষ্ঠক পদ্ধতি: বালক-বালিকাদের নেতৃত্ব বিকাশের লক্ষ্যে একটি কাব ইউনিটকে ছোট ছোট ভাগে ভাগ করে কাব-প্রোগ্রামসহ ইউনিটের যাবতীয় কাজ বাস্তবায়নের পদ্ধতিকে ষষ্ঠক পদ্ধতি বলে।

১. ষষ্ঠক নেতা: কাব-লিডার মনোনীত করবেন।

২. সহকারি ষষ্ঠক নেতা: ষষ্ঠক কাব-লিডারের সঙ্গে মতবিনিময় করে মনোনীত করবেন।

৩. সিনিয়র ষষ্ঠক নেতা: কাব-লিডার ষষ্ঠক নেতাদের মতামত নিয়ে গঠন করবেন।

একটি কাবদল খোলার জন্য যা যা প্রয়োজন হয়:-

১. ২৪ জন উৎসাহী শিশু

২. একজন উৎসাহী বয়স্ক লিডার

৩. দল পরিচালনার জন্য একটি কমিটি

৪. দল পরিচালনার জন্য কিছু তহবিল

৫. দলের কাজ করার জন্য ছোট একটি কক্ষ

৬. কাবিং সংক্রান্ত আকর্ষণীয় কার্যক্রম

৭. প্রতিষ্ঠান প্রধানের পৃষ্ঠপোষকতা।

একটি ইউনিট পরিচালনার জন্য যে সমস্ত রেকর্ড-পত্রের প্রয়োজন:

(১) ভর্তি রেজি:, (২) নোটিশ বহি, (৩) রেজুলেশন বহি, (৪) ব্যাজ সংরক্ষণ বহি, (৫) ক্যাশ বহি, (৬) কাবদের হাজিরা বহি, (৭) গ্রুপ কমিটির নোটিশ বহি, (৮) ষ্টক রেজি:, (৯) চাঁদা আদায় বহি, (১০) পরিদর্শন বহি, (১১) লক বহি, (১২) প্রোগ্রাম রেজি:, (১৩) প্রশিক্ষণ উপকরণ রেজি:।

বিদ্যালয়ের গ্রুপ কমিটি: মোট সদস্য = ৯ জন:

১. সভাপতি: বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক————- ১জন

২. সম্পাদক: প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত সিনিয়র কাব-লিডার——- ১ ,,

৩. সহ:সম্পাদক: প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত জুনিয়র কাব-লিডার—– ১ ,,

৪. সদস্য: (ক) ছাত্র-অভিভাবকদের মধ্য থেকে——–২ ,,

(খ) দাতাদের মধ্য থেকে ————-২ ,,

(গ) বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মধ্য থেকে —–২ ,,

কাব-ব্যাজ:

কাব-ব্যাজ সাধারনত ২ প্রকার। যথা:-

১. দক্ষতা বা ইফিসিয়েন্সি ব্যাজ

২. পারদর্শিতা বা প্রফিসিয়েন্সি ব্যাজ।

দক্ষতা বা ইফিসিয়েন্সি ব্যাজ আবার সাধারনত: চার প্রকার। যথা:-

(১) সদস্য ব্যাজ, (২) তারা ব্যাজ, (৩) চাঁদ ব্যাজ, (৪) চাঁদ তারা ব্যাজ।

কাবিং এ পারদর্শিতা বা প্রফিসিয়েন্সি ব্যাজ মোট ৪৩ টি।

প্যাক মিটিং: প্যাক মিটিং কোন দলীয় সভা বা গোল-টেবিল বৈঠক নয়, অথবা এটি কোন সিদ্ধান্ত গ্রহনের জন্য সভাও নয়। বরং প্যাক মিটিং হচ্ছে কাব-স্কাউট প্রোগ্রাম বাস্তবায়নের জন্য ৬০-৯০ মিনিট ব্যাপী নিয়মিতব্যাপী নিয়মিত সাপ্তাহিক কাব-স্কাউট কর্মসূচি।

কাব অভিযান: কাব বয়সী বালক-বালিকাদের মুক্তাঙ্গনে প্রকৃতি পর্যবেক্ষণসহ উদ্দেশ্যমূলক, আনন্দঘন এবং উদ্দীপণাপূর্ণ পরিভ্রমণই হচ্ছে কাব অভিযান।

দীক্ষাদান অনুষ্ঠান: দীক্ষাদান অনুষ্ঠান একজন নবাগতের জন্য কাব জীবনের প্রবেশদ্বার। নবাগত হিসেবে একজন বালক/বলিকা সদস্য ব্যাজের বিষয়ে তিন মাস প্রশিক্ষণ গ্রহনের পর সে কাবিং এর আদর্শে অনুপ্রানিত হয়ে কাব প্রতিজ্ঞা ও আইন তার দৈনন্দিন জীবনে বাস্তবায়নে অভ্যস্ত হয়ে পড়লেই দীক্ষা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাকে আনুষ্ঠানিক ভাবে বিশ্ব স্কাউট আন্দোলনের একজন সক্রিয় সদস্য হিসেবে বরণ করে নেওয়া হয়। আনুষ্ঠানিক ভাবে দীক্ষা গ্রহনের পূর্ব মূহুর্ত পর্যন্ত কোন নবাগত স্কার্ফ ও ব্যাজ পরতে পারে না এবং নিজেকে একজন কাব হিসেবে দাবি করতে পারে না।