অবশেষে আয়কর রিটার্ন দাখিলের সময় বাড়ল

আজ সোমবার ( ৩০ নভেম্বর ) জাতীয় রাজস্ব বোর্ড,ঢাকা  মোঃ মহিদুল ইসলাম ( চৌধুরী ) , দ্বিতীয় সচিব ( কর আইন-১)  স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপন জারি করেন। জারিকৃত পরিপত্রে   আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার সময় ১ মাস বাড়িনা হয়েছে।  ”৩১ শে ডিসেম্বর পযর্ন্ত আয়কর রির্টার্ন দাখিল করতে পারবেন। এন বি আর চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম বেলা সাড়ে ৩টার দিকে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় এন বি আর কার্যালয়ে গণমাধ্যমকে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান”। 

যদিও এ বছর আয়কর রিটার্ন জমা দেয়ার সময় বাড়ছে না বলে রোববার জানিয়েছিলেন এনবিআর চেয়ারম্যান। রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছিলেন, রিটার্ন জমা দেয়ার শেষ দিন ৩০ নভেম্বরই থাকছে। তবে একদিন পরই পরিস্থিতি বিবেচনায় সিদ্ধান্ত বদল করেছে এনবিআর।  বিষয়টি যুগান্তরকে জানিয়েছেন এনবিআরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সৈয়দ এ মোমেন। তিনি বলেন, এক মাস বাড়ানো হয়েছে রিটার্ন দাখিলের সময়।  

যারা নির্ধারিত সময়ে আয়কর রিটার্ন দিতে পারবেন না, তারা সংশ্লিষ্ট কর অফিসে আবেদন করতে পারবেন। তবে ২ শতাংশ জরিমানার বিষয়টি বাধ্যতামূলক নয়। এ বিষয়ে এনবিআর চেয়ারম্যান জানান, গ্রাহক সঠিক সময়ে কেন রিটার্ন জমা দিতে পারেননি, তার যৌক্তিক কারণ দেখাতে পারলে জরিমানা মওকুফ করা হবে। কমিশনারের কাছে যদি কারণ যৌক্তিক মনে না হয়, তবে জরিমানা গুনতে হবে।  

আয়কর আইন অনুযায়ী উপকর কমিশনার করদাতার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে রিটার্ন জমা দিতে দুই মাস সময় দিতে পারেন। তবে করদাতাকে সেই ক্ষেত্রে ২ শতাংশ জরিমানা দিতে হয়। এনবিআর চেয়ারম্যান আরও জানান, গত বছরের ২৬ নভেম্বরের চেয়ে এ বছরের ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত রিটার্ন বেড়েছে ৬৩ হাজার ১৯৯টি। তবে একই সময়ে আয়কর কমেছে ১৯৩ কোটি টাকা। 

এ বছর ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত দাখিল করা রিটার্নের সংখ্যা ছিল ১৩ লাখ ২০ হাজার ৮২৫। গত বছর একই সময়ে দাখিল করা আয়কর রিটার্ন ছিল ১২ লাখ ৫৭ হাজার ৬২৬টি। সে হিসাবে রিটার্ন বেড়েছে ৬৩ হাজার ১৯৯টি। এ বছর ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত রিটার্নের সঙ্গে কর পরিশোধ হয়েছে ২ হাজার ৩৮৭ কোটি টাকা। গত বছর একই সময়ে রিটার্নের সঙ্গে কর পরিশোধ হয়েছিল ২ হাজার ৫৮০ কোটি টাকা। সে হিসাবে কর পরিশোধ কমেছে ১৯৩ কোটি টাকা।