দুদুকের অনুসন্ধান প্রাথমিক বদলীতে অনিয়ম

গত ২৯ নভেম্বর দুদকের প্রধান কার্যালয় থেকে রংপুরের বিভাগীয় উপপরিচালকের কাছে তথ্য চাওয়া হয়েছে। সে প্রেক্ষিতে তথ্য সংশোধন শুরু করেছেন উপপরিচালক। প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকদের বদলির বিস্তারিত তথ্য চেয়ে গত ১ ডিসেম্বর বিভাগের জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

কোন বিভাগ থাকবে না উচ্চ মাধ্যমিকেও

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বদলিতে অনিয়মের অনুসন্ধান শুরু করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। কমিশনের প্রধান কার্যালয় থেকে বিভাগীয় উপপরিচালকদের কাছে প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকদের বদলির তথ্য চাওয়া হয়েছে। এজন্য মাঠ পর্যায়ের জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের কাছ থেকে শিক্ষকদের বদলির বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ শুরু করেছেন বিভাগীয় উপপরিচালকরা।

নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের অনলাইনে রেজিষ্ট্রেশন ও সংশোধনের সুযোগ

চিঠিতে শূন্যপদ থাকা বিদ্যালয়ের নাম, আবেদনকারী শিক্ষকদের নাম, যোগদানের তারিখ, ১ম যোগদানের তারিখ, উপজেলা শিক্ষক কর্মকর্তার আবেদন গ্রহণ ও সুপারিশের তারিখ, জেলা শিক্ষক অফিসে আবেদনপত্র প্রাপ্তি ও অনুমোদন ও বিভাগীয় কার্যালয়ের পাঠানোর তারিখ ও বদলি না হলে তার কারণ উল্লেখ করে তথ্য পাঠাতে বলা হয়েছে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের এবং তা ৬ ডিসেম্বরের মধ্যে হার্ডকপি দুই কপি বিশেষ বাহক মারফত ও সফট কপি ই-মেইলে মো. মুজাহিদুল ইসলাম, বিভাগীয় উপপরিচালক, প্রাথমিক শিক্ষা, রংপুর বিভাগ বরাবর পাঠাতে বলা হয়েছে।