যথা সময়ে ও যথা নিয়মে এসিআর দাখিল, অনুস্বাক্ষর ও প্রতিস্বাক্ষর করার নির্দেশনা

বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর ) জনপ্রশাসন মন্ত্রাণালয়ের  যুগ্মসচিব মোঃ তোফাজ্জেল হোসেন স্বাক্ষরিত এক আদেশে উল্লেখ করেন যে, গ্রেড বা শ্রেণি নির্বিশেষে সল কর্মচারীর জন্য বিদ্যমান গোপনীয় অনবেদন সংক্রান্ত অনুশাসনমালা অনুসরণ করা বাধ্যতামুলক। কিন্তু লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে অনেকেই এসিআর দাখিল, অনুস্বাক্ষর ও প্রতিস্বাক্ষর করার ক্ষেত্রে অনুশাসনমালার বিধান সমুহ অনুসরণ করছেন না। ফলে পদোন্নতি সহ অনেক ক্ষেত্রে ই সংস্লিষ্ট কর্মচারী ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন, যা কারো কাম্য নয়। এ সি আর দেওয়ার ক্ষেত্রে নিম্নবর্ণিত বিধানসমুহ অনুসরণ করার জন্য নিদের্শক্রমে অনুরোধ করা হয়েছে।

আরো পড়ুনঃ ভ্রমন ব্যয় খাতে বরাদ্দকৃত অর্থ পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত ব্যয় করা যাবে না

#অনুবেদনাধীন কর্মচারী কতৃক ৩১ জানুয়ারির মধ্যে স্বাস্থ্য প্রতিবেদনসহ পুরণকৃত  এসিআর ফরম যথাযথ  অনুবেদনকারীর নিকট দাখিল পূর্বক দাখিলের প্রমান পত্র সংরক্ষণ করিতে হবে।

#অনুবেদনকারী কর্তৃক  এ সিআর ফরম যথানিয়মে অনুস্বাক্ষরপুর্বক সিলগালকৃত খামে গোপনীয়তা নিশ্চিত করে ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যেপ্রতিস্বাক্ষরকারীর দপ্তরে পাঠাতে হবে।

# প্রতিস্বাক্ষরকারী কর্তৃক যথানিয়মে প্রতিস্বাক্ষর সম্পন্ন করে সিলগালাকৃত খামে গোপনীয়তা নিশ্চিত করে ৩১ মার্চের মধ্যে ডোসিয়ার সংরক্ষণকারী কর্তৃপক্ষেরদপ্তরে পৌঁছাতে হবে।

# উক্ত সময়ের পরে দাখিলকৃত,অনুস্বাক্ষরিত এবং প্রতিস্বাক্ষরিত/ ডোসিয়াার সংরক্ষণকারী কর্তৃপক্ষের দপ্তরে প্রাপ্ত গোপনীয় অনুবেদন সাধারনত সরাসরি বাতিল বলে গণ্য হবে।

আরো পড়ুনঃ সংসদীয় কমিটি প্রস্তাব : করোনার ভ্যাকসিন বিতরণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে অগ্রধিকার দিতে হবে

# অনুবেদনাধীন, অনুবেদনকারী ও প্রতিস্বাক্ষরকারী প্রত্যেকেই এসিআর ফরমে তার জন্য নির্ধারিত অংশ যথাযথভাবে পুরন করে স্বাক্ষর, সিল  প্রদানও প্রযোজ্য ক্ষেত্রে প্রাক্তন পদবি, কর্মস্থল ও তারিখ আবশ্যিকভাবে লিপিবদ্ধ করতে হবে। কোন কলাম ফাঁকা রাখা যাবে না। এসিআর এর মেয়াদ ও ১৪ কলাম কাটাছেঁড়াাবিহীন ও সঠিকভাবে লিপিবদ্ধকরতে হবে। উল্লেখ্য , অসম্পুর্ন এ সিআর সরাসরি বাতিল বলে গণ্য হবে।