‘কিডস অ্যালউন্সের’ টাকা আটকে যাচ্ছে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের

অর্থ মন্ত্রণালয় সময়মতো টাকা ছাড় না দেয়ায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জামা-জুতা-ব্যাগ কিনতে ‘কিডস অ্যালাউন্স’ বাবদ এককালীন এক হাজার টাকা প্রদান কার্যক্রম আটকে গেছে। একই সঙ্গে ৯ মাস ধরে এক কোটি ৪০ লাখ শিক্ষার্থীর উপবৃত্তির টাকা দেয়া হচ্ছে না।

এদিকে সারাদেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা দিন-রাত পরিশ্রম করেও সার্ভার জটিলতা, ইন্টারনেট সমস্যা, অভিভাবকদের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) ও মোবাইল সমস্যার কারণে তথ্য আপলোড করতে গিয়ে দুর্ভোগে পড়ছেন। করোনার কারণে অনেক অভিভাবককে খুঁজে পাচ্ছেন না শিক্ষকরা।

এসব সমস্যার কারণে তথ্য সংগ্রহের সময় আরেক দফা তথা ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। দ্বিতীয় দফায় বর্ধিত সময়ের মধ্যেও তথ্য আপলোড করা সম্ভব হবে না বলে শিক্ষকরা জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রাথমিক শিক্ষার জন্য উপবৃত্তি প্রকল্পের পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো. ইউসুফ আলী বলেন, ‘৬৬ হাজার স্কুলের মধ্যে ২২ হাজার স্কুলের শিক্ষার্থীদের তথ্য আপলোড শেষ হয়েছে। ‘নগদ’র সার্ভারের মাধ্যমে নতুন করে তথ্য আপলোড করায় মাঠ পর্যায়ে সমস্যা হচ্ছে। যে কারণে ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত আরেক দফা সময় বাড়ানো হয়েছে। আগে উপজেলা পর্যায়ে ডাটা এন্ট্রি হতো, এবার স্কুল থেকে আপলোড করা হচ্ছে। শিক্ষকরা প্রশিক্ষিত ছিলেন না। তাদের তথ্য আপলোড শেখানো হয়েছে। এখন দ্রুত কাজ হচ্ছে।

এদিকে গত বছরের তিন কিস্তি এপ্রিল-জুন, জুলাই-সেপ্টেম্বর, অক্টোবর-ডিসেম্বর মাসের টাকা আটকে আছে। নতুন বছর শিক্ষাবর্ষ ২০২১ সালের জানুয়ারি মাসের অর্ধেক শেষ হয়েছে। বকেয়া ৯ মাসের উপবৃত্তির টাকা কখন ছাড় হবে তা সুনির্দিষ্ট করে কেউই বলতে পারছে না।

জানা গেছে, অর্থের অভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া প্রতিশ্রুতি নতুন বছরের বইয়ের সঙ্গে জামা, জুতা ও ব্যাগ কেনার জন্য শিক্ষার্থীদের এককালীন এক হাজার টাকা ‘কিডস অ্যালাউন্স’দেয়ার প্রক্রিয়াও আটকে গেছে। এককালীন ১১০০ কোটি টাকা চেয়ে কয়েক দফা চিঠি দিয়েও অর্থ মন্ত্রণালয়ের সাড়া মিলছে না। ফলে নতুন বই পেলেও এককালীন টাকা পাবে কি-না তা এখনও অনিশ্চিত।

প্রকল্প কর্মকর্তারা বলছেন, “অর্থ মন্ত্রণালয় এ টাকা আপাতত দেয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়েছে। নিয়মিত উপবৃত্তির টাকা চেয়ে সেই টাকাই মিলছে না, তার মধ্যে ‘কিডস অ্যালাউন্স’ দেয়া সম্ভব নয় বলে অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে।

এ বিষয়ে প্রাথমিক শিক্ষার জন্য উপবৃত্তি প্রকল্পের পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো. ইউসুফ আলী বলেন, ‘আগামী মাসে বাজেট সংশোধন হবে। আশা করছি সেখানে জামা, জুতা ও ব্যাগের জন্য অর্থ ছাড় করবে অর্থ মন্ত্রণালয়। কারণ, এটি প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা।