প্রাথমিক শিক্ষকদের ১৩ তম গ্রেড পেতে আর কোন বাধা নাই

প্রাথমিক শিক্ষকদের ১৩ তম গ্রেড পেতে আর কোন বাধা নাই , ‘সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সব সহকারী শিক্ষককে ১৩তম গ্রেডে বেতন দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের চিফ অ্যাকাউন্টস ফিন্যান্স অফিসারকে সহকারী শিক্ষককে এ গ্রেডে বেতন দেয়ার বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।’ 

যদিও এর আগে নিয়োগ বিধিমালায় যোগ্যতা পরিবর্তন হওয়ায় স্নাতকে তৃতীয় বিভাগ পাওয়া শিক্ষকদের এ গ্রেডে বেতন পাওয়া নিয়ে অনিশ্চিয়তা সৃষ্টি হয়েছিল। কিছুদিন আগে ইতোমধ্যে নিয়োগ পাওয়া সব শিক্ষককে ১৩তম গ্রেডে বেতন দেয়ার বিষয়ে সম্মতি জানিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়।

গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ‘অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মতি পত্রটি মন্ত্রণালয়ের চিফ অ্যাকাউন্টস ফিন্যান্স অফিসারকে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। স্নাতকে তৃতীয় বিভাগ পাওয়া শিক্ষকরাও ১৩ তম গ্রেডে বেতন পাবেন। ’

গত ১৯ জানুয়ারি সব সহকারী শিক্ষককে ১৩তম গ্রেডে বেতন দেয়ার সম্মতি জানায় অর্থ মন্ত্রণালয়। সম্মতিপত্রে বলা হয়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা, ২০১৬ এর আগে নিয়োগ পাওয়া শিক্ষকদের মধ্যে যারা এখনও কর্মরত রয়েছেন, তাদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল করে বেতনক্রম নির্ধারণে অর্থ বিভাগের সম্মতি জ্ঞাপন করা হলো।

বেতন নির্ধারণ করে জারি করা আদেশের শর্তে বলা হয়েছে, ‘সহকারী শিক্ষক (পুরুষ-মহিলা) সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগ নীতিমালা ২০১৯ এ তফশিল অনুযায়ী পদ পূরণযোগ্য। তবে সরকারি সরকারি প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ১৯৮১, ১৯৯১, ২৯১৩ এর আওতায় নিয়োগ পাওয়া যারা এখনও কর্মরত রয়েছেন, তাদের ক্ষেত্রে উক্ত স্কেলপ্রাপ্তির জন্য সংশ্লিষ্ট নিয়োগ বিধিতে উল্লিখিত যোগ্যতা বিবেচনাযোগ্য হবে।’