অবশেষে দপ্তরী-কামপ্রহরী রাকিবের চাকরি ডিসমিস

দপ্তরী রাকিবের চাকরি ডিসমিস । বিভাগীয় উপ পরিচালক মহোদয়ের নির্দেশে, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের ত্বত্তাবধানে,সহকারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, জনাব হারুন-অর-রশিদ স্যারের নেতৃত্বে উপজেলা শিক্ষা অফিসার, সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার,ম্যানেজিং কমিটি ও সংশ্লিষ্ট প্রধান শিক্ষকের আলাদা আলাদা তদন্ত ও সমন্বিত তদন্ত কমিটির সর্বসম্মতি সিদ্ধান্তক্রমে প্রধান শিক্ষককে লাঞ্ছিতকারী দপ্তরী রাকিব খানের চাকুরী চুক্তিনামা বাতিল সহ ফাইনালি ডিসমিস করেছে (তদন্ত কমিটি)।

ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সম্মানিত ডিজি মহোদয়,উপ-পরিচালক প্রাথমিক শিক্ষা, ময়মনসিংহ বিভাগ,জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার,ময়মনসিংহ শফিউল হক স্যার, সহকারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার হারুন-অর-রশিদ স্যার, উপজেলা শিক্ষা অফিসার সালমা আক্তার ও সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার সবুজ মিয়া স্যারকে।এমন জঘন্যতম ঘটনা ঘটার পর থেকেই উনারা সব সময় নির্যাতিতা শিক্ষক লিলুফা খানমের পাশে থাকার জন্য।

কৃতার্থ জানায় সারা দেশের সকল শ্রদ্ধেয় প্রাথমিক শিক্ষকদের,যাদের প্রচেষ্টায় সারা বাংলায় আলোড়নের ঝড় উঠেছিল, যার ফলে আজ সুন্দর একটা সিদ্ধান্ত হলো। গতকাল থেকে এখন পর্যন্ত নির্যাতিত শিক্ষকের পাশে থেকেছেন,ভবিষ্যতে ও এভাবেই আমরা সকলে জাগ্রত থাকব ইনশাআল্লাহ….