শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটিতে প্রাথমিক শিক্ষকদের করনীয়

শনিবার (১২ জুন) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে শিক্ষার্থীদের সুরক্ষার জন্য আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত সকল সরকারি, বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেনের চলমান ছুটি বাড়িয়েছে সরকার।

তবে এ  ছুটির  সময়টাতে শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মচারী ও অভিভাবকরা কি কি কাজ করবেন সেটিও জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়

দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে করোনা পরিস্থিতির অবনতি এবং কিছু অঞ্চলে আংশিকভাবে কঠোর লকডাউন কার্যকর থাকায় ছুটির এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এছাড়াও প্রাথমিকের সকলের সার্বিক নিরাপত্তা এবং কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় পরামর্শক কমিটির সঙ্গে পরামর্শ করেই ছুটি বাড়ানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, ছুটির এ সময়টাতে প্রাথমিকের সকল শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মচারী ও অভিভাবকরা নিজ নিজ বাসস্থানে অবস্থান করবেন। একইসঙ্গে অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

এতে আরো বলা হয়, শিক্ষার্থীদের বাসস্থানে অবস্থানের বিষয়টি অভিভাবকরা নিশ্চিত করবেন। এসব কিছু নিবিড়ভাবে পরিবীক্ষণ করবেন স্থানীয় প্রশাসন। এছাড়াও সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকরা তাদের নিজ নিজ শিক্ষার্থীরা বাসস্থানে অবস্থান এবং পাঠ্যবই অধ্যায়ন করছে কিনা সে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট অভিভাবকদের মাধ্যমে নিশ্চিত করবেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রাধনমন্ত্রীর কার্যালয়, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ কর্তৃক বিভিন্ন সময়ে জারি করা নির্দেশনা ও অনুশাসনগুলো শিক্ষার্থীসহ সবাইকে মেনে চলতে হবে।