চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকদের পদোন্নতি বিষয়ে হাইকোর্টের সিদ্ধান্ত

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকদের স্থায়ীভাবে পদোন্নতি দিতে নির্দেশনা দিয়েছে হাইকোর্ট।

মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগে দায়েরকৃত রিট পিটিশন নং-৩৮১৯/২০২২-এর বিষয়ে বিজ্ঞ আদালত কর্তৃক জারীকৃত আদেশের বিষয়ে দ্রুত প্রয়োজনীয় আইনানুগ কার্যক্রম গ্রহণের জন্য গত ২৭ জুন,২০২২ তারিখে উপসচিব মোহাম্মদ কবির উদ্দীন স্বাক্ষরিত একটি পত্র প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় বিদ্যালয়-২ শাখা থেকে মহাপরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর এর কাছে পাঠানো হয়েছে।

মন্তণালয়ের পত্রে বলা হয়েছে , এ কে এ মোস্তাফিজুর রহমান এবং অন্যান্য প্রধান শিক্ষকগণ (চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত) তাদের পদায়নকৃত পদে স্থায়ীভাবে প্রধান শিক্ষক হিসেবে পদোন্নতি প্রদানের জন্য মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগে রিট পিটিশন নং-৩৮১৯/২০২২ দায়ের করেন। 

গত ০৮/০৪/২০২২ তারিখে মাহামান্য হাইকোর্ট বিভাগ উক্ত মামলার বিষয়ে রুল নিশি জারী না করে মামলার ১নং বিবাদী সচিব, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, ৩নং বিবাদী মহাপরিচালক, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর বরাবর লিখিত পিটিশনারগণের আবেদনপত্রটি ০৩ মাসের মধ্যে বিধি মোতাবেক নিষ্পত্তির আদেশ প্রদান করেন। আদেশের কপি মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগ হতে এ মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে।

এমতাবস্থায়, রিট পিটিশন নং-৩৮১৯/২০২২-এর আদেশমতে উক্ত মামলার সহিত সংযুক্ত আবেদনসমূহ আগামী ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে বিধি মোতাবেক নিষ্পত্তি করে এ মন্ত্রণালয়কে অবহিত করার জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো। 

এ বিষয়ে মামলার ১ নং বাদী ও বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান শাহিন  বলেন,প্রধান শিক্ষক পদে চলতি দায়িত্ব একটি নতুন প্রক্রিয়া যা বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির দাবীর পেক্ষিতে ২০১৭ সালে চালু হয়। কিন্তু দীর্ঘদিন স্থায়ীকরণ না হওয়ায় তাদের মধ্যে হতাশা বিরাজ করায় মামলা করতে বাধ্য হই।বর্তমানে মন্ত্রণালয়ের চিঠিতে মামলার রায় বাস্তবায়ন করার লক্ষে ডিজি মহোদয়কে যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে তার প্রতিফলন চায় সারা বাংলার শিক্ষক।তাই মামলার ১ নং বাদী ও বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হিসাবে চিঠির আলোকে পদোন্নতির ব্যবস্থা গ্রহনের আবেদন করছি। বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি মো. আবুল কাসেম হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুযায়ী রায় বাস্তবায়নের জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করে পত্রজারি করায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সম্মানিত মাননীয় প্রতিমন্ত্রী,সিনিয়র সচিব স্যারসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন এবং দ্রুত মামলায় অংশগ্রহণকারীগণ সহ সকল চলতিদায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকগণকে স্থায়ী পদোন্নতি দেয়ার অনুরোধ জানান।